Education makes a door to bright future

University admission and others information,International Scholarships, Postgraduate Scholarships, College Scholarship, Study Abroad Financial Aid, Scholarship Search Center and Exam resources for PEC, JSC, SSC, HSC, Degree and Masters Examinees in Bangladesh with take from update sports News, Live score, statistics, Government, Private, current Job Circular take from this site

Education is a way to success in life

University admission and others information,International Scholarships, Postgraduate Scholarships, College Scholarship, Study Abroad Financial Aid, Scholarship Search Center and Exam resources for PEC, JSC, SSC, HSC, Degree and Masters Examinees in Bangladesh with take from update sports News, Live score, statistics, Government, Private, current Job Circular take from this site

Education is a best friend goes lifelong

University admission and others information,International Scholarships, Postgraduate Scholarships, College Scholarship, Study Abroad Financial Aid, Scholarship Search Center and Exam resources for PEC, JSC, SSC, HSC, Degree and Masters Examinees in Bangladesh with take from update sports News, Live score, statistics, Government, Private, current Job Circular take from this site

Education makes a person a responsible citizen

University admission and others information,International Scholarships, Postgraduate Scholarships, College Scholarship, Study Abroad Financial Aid, Scholarship Search Center and Exam resources for PEC, JSC, SSC, HSC, Degree and Masters Examinees in Bangladesh with take from update sports News, Live score, statistics, Government, Private, current Job Circular take from this site

Education is a key to the door of all the dreams

University admission and others information,International Scholarships, Postgraduate Scholarships, College Scholarship, Study Abroad Financial Aid, Scholarship Search Center and Exam resources for PEC, JSC, SSC, HSC, Degree and Masters Examinees in Bangladesh with take from update sports News, Live score, statistics, Government, Private, current Job Circular take from this site

Friday, July 20, 2018

উপদেশমূলক বাণী-হৃদয়স্পর্শী কিছু কথা-তৃতীয় খন্ড

151.⌠⌠জীবন হলো একটা কঠিন পরীক্ষার নাম। যে পরীক্ষায় প্রত্যেকের জন্য প্রশ্নপত্রটা ভিন্ন ভিন্ন। তাই অন্য কাউকে অন্ধভাবে নকল করতে গেলে পরীক্ষায় ফেইল করাটা স্বাভাবিক⌡⌡

152.⌠⌠কখনো কখনো কাউকে ভুলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়াটা কঠিন., কিন্তু... একবার যদি আপনি সামনে এগিয়ে যেতে পারেন... তবে পেছন ফিরে দেখবেন আপনার জীবনের শ্রেষ্ঠ সিদ্ধান্তটাই আপনি নিয়েছিলেন ⌡⌡

153. নিজেকে সস্তা করে ফেলবেন না, তাহলে প্রয়োজনের সময় সবার গ্রহণযোগ্যতা পাবেন না।

154. পৃথিবীতে যদি অপেক্ষা না থাকতো, তবে বোধ হয় পৃথিবীটা এতো সুন্দর হতো না।

155. একটি হাঁস যদি সারাদিন পানিতে থাকেলেও, তাঁর গায়ে লেগে থাকে না, ঝরে পড়ে।
তেমনি মা তাঁর সন্তানকে যতো ই অভিশাপ দেয় না কেনো, তা সন্তানের গায়ে লাগে না।

156. সময় বদলে যায় জীবনের সঙ্গে, জীবন বদলে যায় সম্পর্কের সঙ্গে, সম্পর্ক বদলায় না আপনজনের সঙ্গে, খালি আপনজন বদলে যায় সময়ের সঙ্গে..

157. যে মানুষটি অল্পতেই অনেক বেশি খুশি হয়, সে কিন্তু অল্প আঘাতেও অনেক বেশি কষ্ট পায়। আনন্দ পাবার ক্ষমতা যার যত বেশি, কষ্ট পাবার ক্ষমতাও তার তত বেশি।

158. মানুষের সব সখ মেটা উচিত নয় । কারন সব সখ মিটে গেলে, বেচেঁ থাকার প্রেরণা নষ্ট হয়ে যায় ।

159. পৃথিবীতে যদি দুঃখ না থাকতো, তবে মানুষ সুখ খুঁজতো না। দুঃখই মানুষকে সুখ সন্ধানী করে তুলে।

160. কোনো কিছু না পাওয়ার জন্য আপনিই বেশী দায়ী, কারণ একটাই, আপনার চাওয়ায় ত্রুটি ছিল।

161. মানুষকে জোর করে পরাধীনতার শিকলে বন্দি করা গেলেও, মানুষের মনের স্বাধীনতা হরন করার সাধ্য কারো নেই। আকাশের মতোই মনের স্বাধীনতা সর্বব্যাপী।

162. জীবনে কখনো কারো উপর খুব বেশি নির্ভর করবেন না , কারন অন্ধকারে আপনার চায়াও আপনাকে ছেড়ে চলে যায় ।

163. বিশ্বাস মানুষের একান্ত ব্যক্তিগত বিষয়। একটি সত্য ঘটনা একজন বিশ্বাস করলেও, অন্যজন বিশ্বাস নাও করতে পারে। যে বিশ্বাস করছে না তাকে বিশ্বাস করানোটা অনেক কষ্টসাধ্য ব্যাপার। এক্ষেত্রে প্রমাণ অতি জরুরি। ......................প্রত্যাশী।

164. লাজুক ধরনের মানুষ কোন সময়ই মনের কথা বলতে পারে না, মনের কথা হড়বড় করে বলতে পারে একমাত্র পাগলেরাই | তাই পাগলেরাই পৃথিবীর সবচেয়ে সুখী | _____হুমায়ূন আহমেদ

165. প্রতিটি মানুষের জীবনেই একজন বিশেষ মানুষ আসে। সেই মানুষটি জীবনে এসে হয় অগোছালো জীবন গুছিয়ে দেয়, না হয় গোছালো জীবনকে অগোছালো করে দেয় |

166. বড় গাছ নড়ে কম। বড় মাছের কাঁটা কম। জ্ঞানী লোকের কথা কম । সৎ লোকের সংখ্যা কম। গুণী লোকের কদর কম। মরা নদীর পানি কম। রাগী লোকের ধৈর্য কম । সুস্থ লোকে খায় কম। মূর্খ লোকের আক্কেল কম। নিষ্ঠুর লোকের মায়া কম। শিশুদের হিংসা কম। সৎ লোকের বন্ধু কম। মেয়ে মানুষের বুদ্ধি কম। নিঃশ্বাসের বিশ্বাস কম|

167. যদি ভাল পেনসিল হাতে না পারো,, কারো সুখের গল্প লিখার জন্যে.. তাহলে ভাল রাবার হও,, যেনো কারো দুঃখ মুছে দিতে পারো..!!

168. "সত্য মানুষকে মুক্তি দেয় আর মিথ্যা মানুষকে ধ্বংস করে"

169. জীবনে যদি কেউ তোমার জন্য Wait  না করে তবে পাবলিক টয়লেটে গিয়ে কিছুক্ষণ বসে থাকো।বাহির হয়ে দেখবে লাইনে দাঁড়িয়ে অনেকেই তোমার জন্য Wait করছে.

170. মনের মানুষের কাছে বেশি আবেগ প্রকাশ করতে যেওনা। কেননা, সে তোমার এই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে কষ্ট দিতে পারে।
171. ভালবাসতে মানুসে রুপ খুজুনা,সুন্দর একটা মন খুজু,কারন রুপের ভালবাসা একদিন ফুরিয়ে জাই,কিন্তু মনের ভালবাসা কুনদিন ফুরাইনা 

172. কাওকে পাওয়ার আসা করুনা,কারন তাকে পেতে গিয়ে তুমি নিজে ধঙ্গস হৈয়ে যেতে পার,নিজেকে এমনভাবে তৈরি কর যাতে মানুস তুমাকে পাওয়ার আসা করে 

173. সাধারন হওয়াটাই একটা অসাধারন বিষয়, সবাই সাধারন হতে পারে না | ..... হুমায়ুন আহমেদ..... 

174. মনের মতন স্ত্রী আর সংসার হলে জীবনের সব দুঃখ, সব ব্যর্থতা, সব সমস্যার মোকাবেলা করা যায়। ----- নিমাই ভট্টাচার্য। 

175. "মেয়েদের বোঝা খুব কঠিন। একটি মেয়েকে কখনো পুরোপুরি বুঝতে যা না। পুরোপুরি বুঝতে গেলে হয় আপনি পাগল হয়ে যাবেন নয়তো আপনি মেয়েটির প্রেমে পড়ে যাবেন।" 

176. হাসি সব সময় সুখের অনুভুতি বুঝায় না। এটা মাঝে মাঝে এটাও বোঝায়, আপনি কতটা বেদনা লুকাতে পারেন। 

177. “ভালোবাসা কোনো অধিকারের মধ্যে কাউকে আটকিয়ে ফেলে না, বরং তাকে নতুন স্বাধীনতা দান করে। “ - ---রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর 

178. চেহারা দেখে যদি মানুষ চেনা যেতো তাহলে ভুল মানুষের প্রেমে পরে এতো কাদতে হতো না_____ 

179. সেই ছেলেকে জীবন সঙ্গী করো, যার ভবিষ্যৎ ভালো। সেই মেয়েকে জীবন সঙ্গিনী করো, যার অতীত ভালো। _________ (রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর) 

180. মিথ্যার শক্তি অনেক বেশি। সুন্দর, সত্য বাণীর চেয়ে এ কারণেই গুজব আগে ছড়ায়। ___*হুমায়ূন আহমেদ*___ 

181. মাঝে,মাঝে কষ্ট করে হলেও একা একা চলা শিখতে হয়? কারণ,যাকেছাড়া আপনি চলতে পারবেন না, বা বাঁচতে পারবেন না ভাবছেন, সে কিন্তু, আপনাকে ছাড়া ঠিকই বেঁচে আছে... 

182. তুমি দেখতে সুন্দর বলে, অন্যকে ঘৃনা করোনা।কারন, তুমি যার হাতে সৃষ্টি, সে তার হাতে সৃষ্টি । কখনো নিজের সুন্দোর্য নিয়ে অহংকার করোনা. 

183. হাসাতে না পারলে, কাঁদাবে না।আনন্দ দিতে না পারলে,কষ্ট দিবে না। ভালবাসতে না পারলে,ঘৃণা করবে না। আর বন্ধু হতে না পারলে, শত্রু হবে না? 

184. কাউকে আবেগের ভালোবাসা দিওনা, মনের ভালোবাসা দিও! কারন আবেগের ভালবাসা ১দিন বিবেকের কাছে হেরে যাবে আর মনের ভালোবাসা চিরোদিন থেকে যাবে... ___এলটন ডি 

185. যদি তুমি কাওকে ভালবাস, তবে তাকে মুক্তি দাও, যদি সে ফিরে আসে, তবে সে তোমার। আর যদি ফিরে না আসে, তবে সে কোনদিন ও তোমার ছিল না, 

186. জীবনে কাউকে এতোটা ভালোবাসা উচি না যাতে তাকে ভুলতে কষ্ট হয়, আবার এতটাও ঘৃণা করা উচিত নাহ যে তার জন্য তোমার মায়া হয়.

187. বিনা মেঘে বৃষ্টি হয় না , সূর্য না ডুবলে রাত হয় না , কিছু এমন মানুষ আছে , যাদের সুপ্রভাত না বললে দিনই শুরু হয় না 

188. হারিয়েছে সে-ই কিছু পেয়েছে। এটাই পৃথিবীর একমাত্র লোকসান যাতে আসলে লাভই ভাগ্যে জুটে যায়। 

189. জীবনে এমন একটা সময়ও আসে,যখন নক্ষত্রের জ্যোতিতেও প্রাণের শিরা বেদনার্ত হয়ে ওঠে। 

190.  প্রত্যেক প্রেমিকের জীবনে একটাই সত্য রয়েছে- প্রেমিকের দুঃখে কাঁদবার কেউ নেই; কিন্তু প্রেমিকের কীর্তিকথার বিদ্রুপের হাসি হাসতে সারা জগৎ প্রস্তুত হয়ে আছে। 

191.  সকল ভয়ই মৃত্যভয়ের প্রকাশ্য ছদ্মাবরণ। পরিবর্তনকে ভয় পাই বলেই আমরা ভয় দ্বারা আক্রান্ত হই। 

192.  বস্তুর সীমাবদ্ধতা হলো- তা পাওয়ার আগ পর্যন্ত অস্থিরতা কাজ করে। কিন্তু পাওয়া হয়ে গেলেই তা তৃপ্তি দেয়ার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে। 

193.  পৃথবীতে মানুষই একমাত্র সৃষ্টি যে চিন্তা ও অনুভূতির দ্বারা তার জৈবিক অবস্থা বদলাতে পারে। 

194.⌠⌠জীবন হলো একটা কঠিন পরীক্ষার নাম।যে পরীক্ষায় প্রত্যেকের জন্য প্রশ্নপত্রটা ভিন্ন ভিন্ন। তাই অন্য কাউকে অন্ধভাবে নকল করতে গেলে পরীক্ষায় ফেইল করাটা স্বাভাবিক⌡⌡ 

195.  পৃথিবীতে বেচে থাকতেহলে প্রতি পদে পদেমায়াকে তুচ্ছকরতে হয়।- হুমায়ূন আহমেদ

196. কোনো কিছু পাওয়ার আনন্দের চেয়ে, না পাওয়ার বেদনা অনেক বেশী যন্ত্রনাদায়ক।------------ প্রত্যাশী। 

197.  চাঁদকে উদ্দেশ্য করে তীর ছুঁড়ো,যদি তীর চাঁদের গায়ে নাও লাগে তবে নিশ্চিত তা "তারা" গুলোর বুক তো ভেদ করবেই।বড় কিছু হবার চেষ্টা করো,একটা না একটা কিছু হতে পারবেই। 

198.  কথা বলা শিখতে একজন মানুষের দুই বছর লাগে, কিন্তু-কি বলা উচিত নয়, তা শিখতে লাগে সারাজীবন। 

199. তোমার জিবনে কষ্ট বলনা,যে তোমার কষ্ট বুঝেনা।তাকে ভালোবাস না যে কিনা তোমার ভালোবাসার মর্ম বুঝেনা। 

200.  কারো সাথে বন্ধুত্ব করা সহজ কিন্তু বন্ধুত্ব রক্ষা করা পানির ওপর পানি দিয়ে লেখার চেয়েও কঠিন.

উপদেশমূলক বাণী-হৃদয়স্পর্শী কিছু কথা-দ্বিতীয় খন্ড

71.কাউকে অন্ধের মত বিশ্বাষ করোনা, তাহলে জীবনে অনেক প্রতারিত হবে।

72. পৃথিবীতে বাঁচতে হলে অনেক সময় অনেক কিছু মেনে নিতে হয়। কিছু কিছু মুহূর্ত আসে যখন নিজের অসীম ভালো লাগাকে বিসর্জন দিতে হয়। 

73. কোটিবার চিন্তা কর কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে কিন্তু সিদ্ধান্ত নেয়ার পর কখনও পিছনে ফিরিওনা যদি কোটিটা সমস্যা আসে। 

74. সেই ধৈর্যশীল যে অতীত ভুলতে পারে আর সেই বুদ্ধিমান যে বর্তমান ও ভবিষ্যৎ কে নিয়েই শুধু ভাবে। 

75. প্রশংসা ভালো লোককে আরো ভালো করে, আর খারাপ লোককে করে আরো বেশি খারাপ

76. কাউকে বেশি বিশ্বাস করো না, বেশি বিশ্বাস করার পরিনাম কখনো ভালো হয় না। 

77. সবচেয়ে শক্তিশালি ওই ব্যক্তি যে রাগের সময় নিজেকে নিয়ন্ত্রিত রাখতে সক্ষম হয়।

78. “সৌন্দর্য যে ক্ষনস্থায়ী, ফুলকে দেখেই তা উপলদ্ধি করতে হবে।”

79. বড় গাছ নড়ে কম। বড়মাছের কাঁটা কম।জ্ঞানী লোকের কথা কম । সৎলোকের সংখ্যা কম।গুণী লোকের কদর কম।মরা নদীর পানি কম। রাগী লোকের ধৈর্য কম ।সুস্থ লোকে খায় কম। মূর্খলোকের আক্কেল কম। নিষ্ঠুরলোকের মায়া কম। শিশুদেরহিংসা কম। সৎ লোকের বন্ধুকম। মেয়ে মানুষের বুদ্ধি কম। নিঃশ্বাসেরবিশ্বাস কম| 

80. প্রতিটি মানুষের জীবনেই একজন বিশেষ মানুষ আসে। সেই মানুষটি জীবনে এসে হয়অগোছালো জীবন গুছিয়ে দেয়,না হয় গোছালো জীবনকে অগোছালো করে দেয়

81. বিশ্বাস মানুষের একান্তব্যক্তিগত বিষয়।একটি সত্য ঘটনা একজন বিশ্বাস করলেও, অন্যজনবিশ্বাস নাও করতে পারে।যে বিশ্বাস করছে না তাকে বিশ্বাস করানোটা অনেক কষ্টসাধ্যব্যাপার।এক্ষেত্রে প্রমাণ অতি জরুরি। ...................

82. কোনো কিছু না পাওয়ার জন্য আপনিই বেশী দায়ী,কারণ একটাই, আপনার চাওয়ায় ত্রুটি ছিল।-------

83. মানুষের সব সখ মেটা উচিত নয় । কারন সব সখ মিটে গেলে,বেচেঁ থাকার প্রেরণা নষ্ট হয়ে যায় ।

84. যে মানুষটি অল্পতেই অনেক বেশি খুশি হয়,সে কিন্তু অল্প আঘাতেও অনেক বেশি কষ্ট পায়। আনন্দ পাবার ক্ষমতা যার যত বেশি, কষ্ট পাবার ক্ষমতাও তার তত বেশি।

85. ۞⌠⌠শেষবারের মতো আরেকবার চেষ্টা করে দেখি⌡⌡۞-পৃথিবীতে এই চিন্তাটাই অনেক সফল মানুষের জন্ম দিয়েছে। 

86. আপনার প্রিয় মানুষটি কোন কারণে আপনার উপর রাগ করতে পারে।কেননা, এটা তাঁর অধিকার।আর তাঁর রাগ ভাঙ্গানোটা আপনার দায়িত্ব। -

87. নিজেকে সস্তা করে ফেলবেন না, তাহলে প্রয়োজনের সময় সবার গ্রহণযোগ্যতা পাবেননা।

88. জীবন হলো একটা কঠিন পরীক্ষার নাম। যে পরীক্ষায় প্রত্যেকের জন্য প্রশ্নপত্র টা ভিন্ন ভিন্ন। তাই অন্য কাউকে অন্ধভাবে নকল করতে গেলে পরীক্ষায় ফেইল করাটা স্বাভাবিক

89. কখনোই সেই মানুষটাকে কষ্ট দিও না,যাকে কষ্ট দিলে তার দ্বিগুনকষ্ট তোমার নিজের হয়।

90. ভাবনার উত্তম সময় রাত।কেননা, নিরবতা তখনসঙ্গী হয়। 
উপদেশমূলক বাণী-হৃদয়স্পর্শী কিছু কথা-দ্বিতীয় খন্ড
91. “আমার বয়স যখন পাঁচবছর- আমার মা আমাকে বলেছিলো সুখই হলো জীবনের চাবিকাঠি।যখন আমি স্কুলে গেলামআমাকে লিখতে বলা হলো আমি বড় হয়ে কি হতে চাই।আমি লিখলাম- আমি বড়হয়ে সুখি হতে চাই।তারা বলেছিলো আমি প্রশ্নটা ঠিকমতো বুঝিনি,এবং আমি বলেছিলাম তারাই জীবনের অর্থটা এখনো বোঝেনি।”- জন লেলন

92. যে লোক ধৈর্য্য ধরতে পারে, তার জন্য আনন্দও প্রশান্তি অপেক্ষা করে।--- জন লিলি। 

93. অভিমান হল হৃদয়ের অতি গোপন প্রকোষ্ঠের ব্যাপার। যে কেউ সেখানে হাত ছোঁয়াতে পারে না | _  

94. "তোমার যা নেই তার পেছনে ছুটো।যা আছে তা নষ্ট করো না।মনে রেখো আজকে তোমার যা আছে।গতকাল তুমি সেটার পেছনে ছুটে ছিলে--- এপিকিউরাস। 

95. এই পৃথিবী কখনো খারাপ মানুষের খারাপ কর্মকাণ্ডের জন্য ধংস হবেনা. যারা খারাপ মানুষের এসব কর্ম-কাণ্ড দেখেও কিছু করেনা তাদের জন্যই ধংস হবে !---আইনস্টাইন  

96. কেউ যদি তোমার ভালবাসার মূল্যনা বুঝে তবে নিজেকে নিঃস্ব ভেবো না, কারন জীবনটা এত তুচ্ছ না।  

97. মানুষ সবচেয়ে বড় ভুলকরে তখনই,যখন সে কারো প্রতি অসম্ভব ভাবে দুর্বল হয়ে পড়ে।  

98. কেউ ভুল করে ফেললে,সবার সামনে তিরস্কার না করে,আলাদাভাবে বলে তাকে শুধরে নেয়ার সুযোগ দিন। 

99. পাপের কাজ করে লজ্জিত হলে পাপকমে যায়, আর পুণ্যকাজকরে গর্ববোধ করলে পুণ্য বরবাদ হয়ে যায় |_____হযরত আলী (রাঃ)"  

100. জীবনের রাস্তায় একা একা হেঁটে যাওয়া খুব একটা কঠিন কাজ নয় ।কিন্তু , কারো হাত ধরে অনেকটা পথ হেঁটে গিয়ে,সেখান থেকে একা একা ফিরে আসা খুব বেশি কঠিন ।

101. পৃথিবীতে আসার সময় প্রতিটি মানুষই একটি করে আলাদিনের প্রদীপ নিয়ে আসে, কিন্তু খুবকম মানুষই সেই প্রদীপথেকে ঘুমন্ত দৈত্যকে জাগাতে পারে|___

102. যে মায়ের সন্তান দেশের জন্য জীবন দিয়েছে তার মাতৃত্বের গৌরব চির ভাস্বর। 

103. কাউকে কাছে টানার আগে, প্রশ্রয় দেবার আগে বারবার ভাবুন দুজন দুজনার যোগ্য কিনা।কাছে টেনে অযোগ্যতা কিংবা অক্ষমতার কথা জানিয়ে নিজেও অপমানিত হবেননা কিংবা কাউকে অপমান করার ও অধিকার আপনার নেই।। 

104. চাঁদকে উদ্দেশ্য করে তীর ছুঁড়ো,যদি তীর চাঁদের গায়ে নাও লাগে তবে নিশ্চিততা "তারা" গুলোর বুক তো ভেদ করবেই। বড় কিছু হবার চেষ্টা করো,একটা না একটা কিছু হতে পারবেই। 

105. প্রেম হল এমনএকটা সাগরের নাম । যার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় মনে হবে, "ইস!! একবার যদি নামতে পারতাম । আর যারা সে সাগরে নেমেছে তার মনে হয়, "ইস !! কেন যে নামলাম ?? ......... 

106. অতীতকে ছোট করে দেখা উচিত নয় আবার অতীত কে অতিরিক্ত মুল্য দেয়াও ঠিক না… ——-  

107. ¤¤যে তোমাকে কষ্ট দেয় তার জন্য কখনো চোখের জল ফেলনা… বরং,,তাকে ধন্যবাদ দাও! তার ছেয়ে ভাল কাওকে খোঁজার সুযোগ করে দেয়ার জন্য! || 

108. মনীষী বলেছেন, সুন্দরী নারী এবং পেছনের দরজা মানুষকে সবসময় পেছনের দিকেই টানে! 

109. চেহারা দেখে যদি মানুষ চেনা যেতো তাহলে ভুল মানুষের প্রেমে পরে এতো কাদতে হতো না_____  

110. হাসি সব সময় সুখের অনুভুতি বুঝায় না।এটা মাঝে মাঝে এটাও বোঝায়,আপনি কতটা বেদনা লুকাতে পারেন।:'

111. "মেয়েদের বোঝা খুব কঠিন।একটি মেয়েকে কখনো পুরোপুরি বুঝতে যানা।পুরোপুরি বুঝতে গেলে হয় আপনি পাগল হয়ে যাবেন নয়তো আপনি মেয়েটির প্রেমে পড়ে যাবেন।"

112. জীবনে কাউকে এতোটা ভালোবাসা উচিনা যাতে তাকে ভুলতে কষ্ট হয়, আবার এতটাও ঘৃণা করা উচিত নাহ যে তার জন্য তোমার মায়া হয়.... 

113. কাউকে আবেগে রভালোবাসা দিওনা,মনের ভালোবাসা দিও!কারন আবেগের ভালবাসা ১দিন বিবেকের কাছে হেরে যাবে আর মনের ভালোবাসা চিরোদিন থেকে যাবে...__ 

114. এমন কাউকে ভালবেসনা যার কাছে প্রয়োজন ব্যতীত তোমার আর কোন মূল্য নেই ।তাকেই ভালবেস যে প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে তোমার প্রয়োজন অনুভব করবে ।  

115. সাহায্য খুব দামী একটি উপহারের নাম।সবাই এই উপহার দিতে পারে না।যারা আপনাকে এই উপহারটি দেয় তারা মনের দিক থেকে অনেক বড় মানুষ... 

116. পৃথিবী অনেক সুন্দর হয় যদি সুন্দর চোখে দেখা যায়।জীবন অনেক সহজ হয়যদি তা সহজ করে গ্রহণকরা হয় 

117. নিজেকে খুব বেশী চালাক ভাবতে যেওনা ।ভুলে যেওনা- নিঃশব্দে পথ চলার ক্ষমতা তোমার থাকলে, অন্য কেউ হাওয়ায় উড়ে চলার ক্ষমতা রাখে,অস্বাভাবিক নয়।  

118. পৃথীবি খুব সুন্দর অনেক মানুষ কে ভাল লাগতে পারে তাই বলে সবার সাথে প্রেম করা যায়?মনে রেখ ভাল লাগার মানুষ অনেক BUT মনের মানুষ ১জন...  

119. মাঝে মাঝে কষ্টকরে হলেওএকা একা চলা শিখতে হয়?কারণ,যাকেছাড়া আপনি চলতে পারবেননা, বা বাঁচতে পারবেননা ভাবছেন, সে কিন্তু, আপনাকে ছাড়া ঠিকই বেঁচে আছে...  

120. তুমি দেখতে সুন্দর বলে,অন্যকে ঘৃনা করোনা।কারন,তুমি যার হাতে সৃষ্টি,সে তার হাতে সৃষ্টি ।কখনো নিজের সুন্দোর্যনিয়ে অহংকার করোনা.  
121. হাসাতে না পারলে,কাঁদাবে না।আনন্দদিতে না পারলে,কষ্টদিবে না।ভালবাসতে না পারলে,ঘৃণা করবে না।আর বন্ধু হতে না পারলে, শত্রু হবে না..

122. কখনো মানুষের বিশ্বাস নিয়ে খেলা করো না। তাহলে একদিন দেখবে, নিজেকে বিশ্বাস করানোর মত, এই পৃথিবীতে কাওকেই পাশে খুঁজে পাবে না।  

123. যে তোমায় সত্যিকার ভাবে ভালোবাসে..... সে শত দুঃখ কষ্ট সহ্য করেই তোমার পাশে রবে..... তাকে বেঁধে রাখতে অন্য কোন কিছুর প্রয়োজন নেই..... তোমার ভালোবাসাই সেক্ষেত্রে যথেষ্ট... আর............ যদি ভালো না বাসে তাহলে কোন কিছুর বিনিময়ে তুমি তাকে ধরে রাখতে পারবে না....  

124. এমন কাউকে ভালোবেসো না, যার কাছে প্রয়োজন ব্যতিত তোমার আর কোনো মূল্য নেই , তাকেই ভালোবাসো, যে প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে সর্বদাই তোমার প্রয়োজন অনুভব করবে ।  

125. মনের মাঝে তাকেই জায়গা দাও । যে জায়গা পাওয়ার যোগ্যতা রাখে । তার জন্য কোন জায়গা রেখোনা, যে তোমার পুরো মনটাকে খালি করে চলে যাবে। ভুল মানুষকে নিয়ে কখনো স্বপ্ন দেখনা । তাহলে সেই স্বপ্নের সাথে তুমি ও হারিয়ে যাবে । আর জীবনে অনেক কষ্ট পাবে । 

126. কষ্ট ছাড়া কেউ অশ্রু ঝরাতে পারে না, ভালোবাসা ছাড়া কোনো সম্পর্ক হয় না, জীবনে একটা কথা মনে রেখো কাউকে কাঁদিয়ে নিজের স্বপ্ন সাজানো যায় না......৷৷  

127. "হাতের রেখায় মানুষের ভাগ্য থাকে না। মানুষের ভাগ্য থাকে কর্মে" 

128. যে মানুষটি অল্পতেই অনেক বেশি খুশি হয়, সে কিন্তু অল্প আঘাতেও অনেক বেশি কষ্ট পায়।আনন্দ পাবার ক্ষমতা যার যত বেশি, কষ্টপাবার ক্ষমতাও তার তত বেশি। তাইকাউকে কষ্ট দিবে না ......  

129. জীবনে কখনো কারো উপর খুব বেশি নির্ভর করবেন না , কারন অন্ধকারে আপনার চায়াওআপনাকে ছেড়ে চলে যায় ।  

130. যদি ভাল পেনসিল হাতে না পারো,, কারো সুখের গল্প লিখার জন্যে.. তাহলে ভালরাবার হও,, যেনো কারো দুঃখমুছে দিতে পারো..!! 

131. কাউকে যদি ভালবাস, ভালবেসো চিরদিন। আর যদি না বাসো, বেসনা কোন দিন। অবুজ মননিয়ে খেলা খেলনা, কোন নিষ্পাপহৃদয়ে বেথা দিয়না..

132. মনের মানুষের কাছে বেশি আবেগ প্রকাশ করতে যেওনা। কেননা, সে তোমার এই দুর্বলতারসুযোগ নিয়ে কষ্ট দিতে পারে।  

133. উত্তপ্ত মরুর বুকে অবিশ্রাম হেঁটেও তুমি হবেনা ক্লান্ত, দাঁড়াবে ক্ষনিকের তরে,যদি আশা হয় প্রখর, সংকল্প হয় দৃঢ়....তবে পড়িতে পারো মরীচিকার ছলে... ভয় নেই এথেকেও পরিত্রাণ পাইবে সুদৃঢ় মনোবলে.....!!

134. মুখের কথাকে নয়, বিশ্বাস করুন কাজকে। 

135. আপনার প্রিয় মানুষটি কোন কারণে আপনার উপর রাগ করতে পারে। কেননা, এটা তাঁর অধিকার। আর তাঁর রাগ ভাঙ্গানোটা আপনার দায়িত্ব। 

136. সেই তোমাকে সত্যিকারের ভালবাসে, যে তোমার দেয়া শত কষ্ট, যন্ত্রনা, অপমান মুখ বুঝে সহ্য করে। 

137. ভালো মানুষের রাগ থাকে বেশী। আর যারা মিচকা শয়তান তাঁরা রাগে না। পাছায় লাথি দিলেও, লাথি খেয়েও হাসবে। - হুমাহুন আহমেদ। 

138. ভালোবাসার সুখ যেমন স্বর্গীয়। তেমনি যন্ত্রণাও নরকীয়, তবুও তা মধুর।একজন সুন্দরী আকর্ষনীয় নারীর পাশে ২ ঘন্টা বসে থাকুন, দেখবেন সময় উড়ে চলে যাচ্ছে। গ্রীষ্মের গরমের মাঝে ২ মিনিট হাঁটুন, মনে হবে আপনি অনন্তকাল ধরে হাঁটছেন। - আলবার্ট আইনস্টাইন। 

139. সব মানুষই প্রেমে পড়ে। কেউ প্রকাশ করে,কেউ লুকিয়ে রাখে। প্রেম ভালোবাসা থেকে এ জগতে কেউই দূরে থাকতে পারে না। 

140. লাজুক ধরনের মানুষ বেশির ভাগ সময় মনের কথা বলতে পারে না। মনের কথা হড়বড় করে বলতে পারে শুধু মাত্র পাগলরাই। পাগলরা মনে হয় সেই কারনে সুখি। ...... হুমায়ুন আহমেদ। 

141. যে ব্যক্তি অপরের দোষের কথা তোমার নিকট প্রকাশ করে, সে নিশ্চয়ই তোমার দোষের কথাও অপরের নিকট প্রকাশ করে থাকে| 

142. পৃথিবীতে দুজন মানুষকে খুব বেশি ভালোবাসা উচিত। একজন হলো - যে তোমাকে জন্ম দিয়েছে আর একজন হলো - যাকে পাওয়ার জন্য তোমার জন্ম হয়েছে... 

143. কখনো ই কারো এমন প্রশংসা করবেন না। যে প্রশংসা কারো মনে প্রশ্নের সৃষ্টি করতে পারে।

144. ভালবেসে সারা জীবনের জন্য যার হাতটা ধরতে পারবে না, অল্প কিছুদিনের জন্য তার হাত ধরে অভিনয় করোনা। 

145. কারো সাথে বন্ধুত্ব করার আগে তাকে পরীক্ষা করে নেয়া উচিত, সে বন্ধুত্বের যোগ্য কিনা। 

146. বেশি কিছু আশা করা ভুল, বুঝলাম আমি এত দিনে, মুক্তি মিলে না কোন দিন জড়ালে হৃদয় কোন ঋণে। ........শ্রীকান্ত 

147. প্রত্যেক মানুষের মাথায় এক বা একাধিক টেকনিকেল সমস্যা থাকে । আর তাই বলে এটা ভাবার কোনো অবকাশ নেই যে সে পাগল । ___ধীমান সরকার । 

148. মেয়েদের মন হয় নরম এবং অনুভূতিপ্রবণ। সে কারণে ওদের উপর ভালমন্দ দু’টি দিকেরই প্রভাব অত্যন্ত তীব্র হয়ে থাকে। সুতরাং মেয়েদের যদি সময়মত সুশিক্ষা দেওয়া না হয় তবেএর বিষম ফল পিতা মাতাকে দুনিয়া ও আখেরাতে সমভাবে ভোগ করতে হবে। .......ইমাম আহমদ ইবনে হাম্বল (রাহঃ) 

149. পরের প্রশংসা পেতে হলে, অপরকে প্রশংসা করতে হয় - বি সি রায়. 

150. ۞⌠⌠শেষবারের মতো আরেকবার চেষ্টা করে দেখি⌡⌡۞ -পৃথিবীতে এই চিন্তাটাই অনেক সফল মানুষের জন্ম দিয়েছে। 

উপদেশমূলক বাণী-হৃদয়স্পর্শী কিছু কথা-প্রথম খন্ড

1.ভাগ্য তোমার হাতে নেই, কিন্তু সিদ্ধান্ত তোমার হাতে । ভাগ্য সিদ্ধান্ত নেয় না, কিন্তু তোমার সিদ্ধান্তই তোমাকে ভাগ্য এনে দিতে পারে ৷

2.যার মন পাথরের মত তুমি তাকেই ভালবাস কারণ তুমি যদি পাথরে একবার ফুল ফুটাতে পার তাহলে সেই ফুল সুধু তোমাকেই সুবাস দেবে

3.হাসি সব সময় সুখের অনুভূতি বোঝ যায় না,, এটা মাঝে মাঝে এটাও বোঝায়, আপনি কতটা বেদনা লুকাতে পারেন।

4.ভালোবাসা বদলায় না, বদলে যায় মানুষগুলো। অনুভূতি হারায় না, হারিয়ে যায় সময় গুলো। 

5.বোকা মানুষ গুলো হয়তো অন্যকে বিরক্ত করতে জানে। কিন্তু কখনও কাউকে ঠকাতে জানে না।

6.প্রজাপতির পিছনে ছুটে সময় নষ্ট করো না। "ফুলের চাষ করো"। দেখবে প্রজাপতিই তোমার পিছনে ছুটবে।

7.যদি আপনার কাছে কেউ কিছু বলতে চায়, তবে মনোযোগ দিয়ে তার কথা গুলো শুনুন। কিছু দিতে পারেন বা না পারেন, আপনার আন্তরিকতা তার হৃদয়কে স্পর্শ করবে।

8.কোনোকিছু আমাদের কাছে সবচেয়ে বেশি মূল্যবান মনে হয় দুটি সময়ে। সেটি অর্জন করার পূর্বে এবং হারিয়ে ফেলার পর। এই দুইয়ের মধ্যেবর্তী সময়ে তার মূল্য মাথায় রাখুন। তাকে হারিয়ে ফেলার সম্ভাবনা কমে যাবে। 

9."ভুল ভ্রান্তি দিয়েই মানুষের জীবন। সেই ভুলকে প্রাধান্য দিয়ে বাকি জীবনে অশান্তি ডেকে আনবার কোন মানে হয় না"।

10.সাফল্য সুখের কারন নয় বরং সুখই সাফল্যের চাবিকাঠি। আপনি যাই করুন না কেন, তা যদি মন থেকে ভালোবেসে খুশিমনে করতে পারেন, তবে সাফল্য আসবেই।

11.সুখের পেছনে ছুটতে নেই।সুখ প্রজাপতির মত।ধরতে গেলে ধরা দেয়না কিন্তু চুপ করে থাকলে ঠিকই গায়ে এসে বসে।। 

12.এক ফোটা বিষ' অনেক পানি নষ্ট করতে" ছোট্ট একটা পাথর' একটা গ্লাস ভাঙ্গতে পারে" আর ছোট্ট একটা মিথ্যা কথা" পুরো Life টা নষ্ট করে দিতে পারে" 

13.অনেক জিনিস অন্যের ভাগে পড়ে যা আমার ভাগে পড়ে না , তাই নিয়ে দুঃখ করে লাভ নেই । কেননা আমার ভাগে যা পড়েছে তা অন্যের ভাগে হয়তো পড়েনি ।

14.পাহাড়ের উপর দারিয়ে আকাশ কে যতটা কাছে মনে হয় , আকাশ ততোটা কাছে নয়. ঠিক তেমনি কোন মানুষ কে যতটা আপন মনে হয় , আসলে সে কখনো ততোটা আপন নয়.???

15.যে যেতে চায় তাকে যেতে দাও আটকিয়ে রাখার চেস্টা করো নাহ। আটকালেই সে ভাব্বে যে তাকে তোমার কোন গতি নেই, তুমি অচল। যে তোমার মুল্য বোঝে নাহ তাকে আটকে রাখার কোন দরকার নেই। AvOid koro খুশি থাকো। avoid করার মাঝে ও একটা মজা আছে। বিশ্বাস নাহ করলে একবার ট্রাই করেই দেখো।

16.মিথ্যাবাদির শাস্তি এই নয় যে তাকে কেউ বিশ্বাস করে না বরং সেই নিজেই কাউকে বিশ্বাস করতে পারে না।  

17.জীবন হলো একটা কঠিন পরীক্ষার নাম। যে পরীক্ষায় প্রত্যেকের জন্য প্রশ্নপত্রটা ভিন্ন ভিন্ন। তাই অন্য কাউকে অন্ধভাবে নকল করতে গেলে পরীক্ষায় ফেইল করাটা স্বাভাবিক। 

18.বিপদ যত বড় হোক না কেন, তাকে চিরস্থায়ী মনে করো না ধৈর্য ধরে স্রস্টার কাছে বিপদ থেকে মুক্তির প্রার্থনা করো।  

19.“মাথা ছাড়া যেমন মানব দেহের কথা কল্পনা করা যায় না, তেমনি সবর বা ধৈর্য ছাড়া কোনো কিছুই সঠিক হয় না।” 

20.মিথ্যা বললে তা তোমার মনেই রয়ে যায়। মনকে খোঁচাতে থাকে। সত্য বলার সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো তুমি কি বলেছো তা আর তোমার মনে রাখার প্রয়োজনীয়তা নেই। 

21.জীবনে আশা করা, কারো প্রতি আস্থা রাখা ও নিজের ক্ষমতার উপর বিশ্বাস করা থামিও না। কিছু খারাপ স্মৃতির জন্য এই তিনটা থেকে বিরত থাকলে জীবনে সুখ খুঁজে পাওয়া যায় না।

22. ভালোবাসো অল্প ভালোবাসো অল্প নয় বেশি করে, যাকে তুমি অনেক বেশি ভালোবাসো। মনে রাখবে সারা জীবন ধরে.মন দিও মনের মানুষকে পাবে যাকে নিজের করে সারা জীবনের জন্য। বিয়ে করবে তো কর রূপ সৌন্দর্য আর অর্থ কে নয় একজন প্রকৃত মানুষ কে..মানুষ রুপি জানোয়ার কে নয় । 

23. মনের মানুষের মনের মানুষের কাছে বেশি আবেগ প্রকাশ করতে যেওনা। কেননা, সে তোমার এই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে কষ্ট দিতে পারে।  

24. ভালবাসতে মানুষ ভালবাসতে মানুষ রূপ খোজেনা,সুন্দর একটা মন খোজে,কারণ রূপের ভালবাসা একদিন ফুরিয়ে যায়,কিন্তু মনের ভালবাসা কোনদিন ফুরায়না । 

25. কাউকে পাওয়া কাউকে পাওয়ার আসা করোনা, কারণ তাকে পেতে গিয়ে তুমি নিজে ধংস হয়ে যেতে পার, নিজেকে এমনভাবে তৈরি কর যাতে মানুষ তোমাকে পাওয়ার আসা করে। 

26. চেহারা দেখে চেহারা দেখে যদি মানুষ চেনা যেতো তাহলে ভুল মানুষের প্রেমে পরে এতো কাঁদতে হতো না_____ 

27. হাসি সব সময় সুখের অনুভূতি বুঝায় না। এটা মাঝে মাঝে এটাও বোঝায়, আপনি কতটা বেদনা লুকাতে পারেন। 

28. মিথ্যার শক্তি মিথ্যার শক্তি অনেক বেশি। সুন্দর, সত্য বাণীর চেয়ে এ কারণেই গুজব আগে ছড়ায়। ___*হুমায়ূন আহমেদ*

29. সেই ছেলেকে সেই ছেলেকে জীবন সঙ্গী করো, যার ভবিষ্যৎ ভালো। সেই মেয়েকে জীবন সঙ্গিনী করো, যার অতীত ভালো। _________ (রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর)  

30. ভালোবাসা কোনো “ভালোবাসা কোনো অধিকারের মধ্যে কাউকে আটকিয়ে ফেলে না, বরং তাকে নতুন স্বাধীনতা দান করে। “ - ---রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

31. "মেয়েদের বোঝা "মেয়েদের বোঝা খুব কঠিন। একটি মেয়েকে কখনো পুরোপুরি বুঝতে পারা যায় না । পুরোপুরি বুঝতে গেলে হয় আপনি পাগল হয়ে যাবেন নয়তো আপনি মেয়েটির প্রেমে পড়ে যাবেন।" 

32. জীবনে কাউকে জীবনে কাউকে এতোটা ভালোবাসা উচিত না যাতে তাকে ভুলতে কষ্ট হয়, আবার এতটাও ঘৃণা করা উচিত নাহ যে তার জন্য তোমার মায়া হয়....। 

33. যদি তুমি যদি তুমি কাউকে ভালবাস, তবে তাকে মুক্তি দাও, যদি সে ফিরে আসে, তবে সে তোমার। আর যদি ফিরে না আসে, তবে সে কোনদিন ও তোমার ছিল না । 

34. কাউকে আবেগের কাউকে আবেগের ভালোবাসা দিওনা, মনের ভালোবাসা দিও! কারণ আবেগের ভালবাসা ১দিন বিবেকের কাছে হেরে যাবে আর মনের ভালোবাসা চিরদিন থেকে যাবে... ___এলটন ডি। 

35. হাসাতে না হাসাতে না পারলে, কাঁদাবে না। আনন্দ দিতে না পারলে,কষ্ট দিবে না। ভালবাসতে না পারলে,ঘৃণা করবে না। আর বন্ধু হতে না পারলে, শত্রু হবে না?  

36. তুমি দেখতে তুমি দেখতে সুন্দর বলে, অন্যকে ঘৃণা করোনা। কারণ, তুমি যার হাতে সৃষ্টি, সে তার হাতে সৃষ্টি । কখনো নিজের সৌন্দর্য নিয়ে অহংকার করোনা । 

37. মাঝে,মাঝে মাঝে,মাঝে কষ্ট করে হলেও একা একা চলা শিখতে হয়? কারণ, যাকেছাড়া আপনি চলতে পারবেন না, বা বাঁচতে পারবেন না ভাবছেন, সে কিন্তু আপনাকে ছাড়া ঠিকই বেঁচে আছে...। 

38. পৃথিবী খুব পৃথিবী খুব সুন্দর, অনেক মানুষ কে ভাল লাগতে পারে তাই বলে কি সবার সাথে প্রেম করা যায়? মনে রেখ ভাল লাগার মানুষ অনেক BUT মনের মানুষ ১জন...। 

39. নিজেকে খুব নিজেকে খুব বেশী চালাক ভাবতে যেওনা । ভুলে যেওনা- নিঃশব্দে পথ চলার ক্ষমতা তোমার থাকলে, অন্যকেউ হাওয়ায় উড়ে চলার ক্ষমতা রাখে, অস্বাভাবিক নয় । 

40. পরিপূর্ণ তৃপ্তি পরিপূর্ণ তৃপ্তি নিয়ে কুঁড়েঘরে থাকাও ভালো, অতৃপ্তি নিয়ে বিরাট অট্টালিকায় থাকার কোন সার্থকতা নেই...। 

41. পৃথিবী অনেক পৃথিবী অনেক সুন্দর হয় যদি সুন্দর চোখে দেখা যায়। জীবন অনেক সহজ হয় যদি তা সহজ করে গ্রহণ করা হয় । 

42. সাহায্য খুব সাহায্য খুব দামী একটি উপহারের নাম। সবাই এই উপহার দিতে পারে না। যারা আপনাকে এই উপহারটি দেয় তারা মনের দিক থেকে অনেক বড় মানুষ । 

43. এমন কাউকে এমন কাউকে ভালবেসনা যার কাছে প্রয়োজন ব্যতীত তোমার আর কোন মূল্য নেই । তাকেই ভালবেস যে প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে তোমার প্রয়োজন অনুভব করবে । 

44. পৃথিবীতে প্রিয় পৃথিবীতে প্রিয় মানুষ গুলোকে ছাড়া বেঁচে থাকাটা কষ্টকর কিন্তু অসম্ভব কিছু নয়। কারো জন্য কারো জীবন থেমে থাকে না, জীবন তার মতই প্রবাহিত হবে । 

45. জানি তুমি জানি তুমি আমাকে ভালোবাসো না,তাই বলে যাকে তাকে যেন মন দিয়ে বসে থেক না. . . ভালো বন্ধু কামনা করি সারা জীবন। 

46. কিছু কিছু কিছু কিছু কথা থাকে যা মুখে বলা যায় না!! তা চোখে দিয়ে বুজঝে নিতে হয়। আর তা যদি হয় ফার্স্ট প্রেম অর ফাস্ট দেখা। সে চোখের ভাষা বুজতে হবে!!!  

47. মিথ্যা বলে মিথ্যা বলে খুশি করার চেয়ে সত্য বলে কাঁদানো অনেক ভালো... তাতে করে তোমার উপর রাগ করলেও কখনো তোমার থেকে বিশ্বাস হারাবে না!  

48. যখন তোমরা যখন তোমরা ৩ জন থাকো , তখন ২জন চুপি চুপি কথা বলবে না। তাহলে অন্য জনের মনে কষ্ট আসবে।  

49. সত্যিকারের ভালবাসা সত্যিকারের ভালবাসা জীবনে একবার হয়। কোন সময়,কোন জায়গায়, কার সাথে কিভাবে হয় তা কেউ বলতে পরেনা। So মন দিয়ে ভালোবাসো"। 

50. যদি তুমি যদি তুমি কাঊকে পাওয়ার জন্য সৃষ্টিকর্তার কাছে দোয়া করে না পাও। তবে মনে করবে অন্য কেঊ তোমাকে পাওয়ার জন্য দোয়া করছে যার দোয়া তোমার চেয়ে সত্যি এবং সত।  

51. কিছু কল্পনা কিছু কল্পনা রেখো অপুর্ণতার আশায়...কিছু কল্পনা রেখ নিজের ভাষায়। কিছু বন্ধু রেখো সময়ের কারণে, কিছু বন্ধু রেখো জীবনে মরণে।

52. ভালোবেসে মূল্যহীন হওয়ার চেয়ে না ভালোবেসে অমূল্য থাকাই শ্রেয়। 

53. যে আজ মিথ্যা বলে সুখ পায়,সে একদিন সত্য বলতে গিয়ে কাঁদবে। 

54. সফলতার পিছনে ছুটো না, যোগ্যতা অর্জন কর , দেখবে সফলতা তোমার পিছনে ছুটবে|  

55. সময়ের সাথে নিজেকে পরিবর্তন করা বুদ্ধিমানের কাজ... 

56. তুমি কখনোই সব কিছু পেতে পার না, কারন সবকিছু রাখার জায়গাও তোমার নেই। 

57. জন্মদিনে এত উল্লসিত হবার কিছু নেই। মনে রেখ, তুমি মৃত্যুর দিকে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেলে। 

58. কাউকে পাওয়ার আশা কোরো না, নিজেকে এমন ভাবে তৈরি করো যেন মানুষ তোমাকে পাওয়ার আশা করে । 

59. আপন ভেবে কাউকে মনের সব কথা বলো না এমন এক সময় আসবে সে তোমাকে তোমারই কথা দিয়ে আঘাত করবে  

60. জীবনে উন্নতি করতে চাইলে অবশ্যই স্বপ্নগুলোকে বড় করতে হবে। 

61. যেটা হয়ে গেছে তার জন্য আফসোস করো না। যা হতে যাচ্ছে তা নিয়ে চিন্তা কর।

62. অর্থ মানুষের অবস্থার পরিবর্তন করলেও, স্বভাব বদলাতে পারে না। 

63. দেহের সৌন্দর্যের চেয়ে মনের সৌন্দর্য হাজার গুনে শ্রেষ্ঠ...  

64. কেউ কাউকে ঠকিয় না। পরে হয়তো তুমি তোমার ভূল বুঝতে পারবে কিন্তু তখন আফসোস ছাড়া আর কিছুই করার থাকবে না। 

65. যৌবনের ইবাদত বৃদ্ধ বয়সের ইবাদতের চেয়েঅনেক বেশি দামী, আর বৃদ্ধ বয়সের পাপ যৌবনের পাপের চেয়ে অনেক বেশি জগন্য। 

66. মুর্খের সঙ্গে বন্ধুত্ব করো না, সে তোমার উপকারের চেষ্টা করে তোমার ক্ষতি করবে।  

67. যে প্রতিবেশী তোমার থেকে শান্তি প্রত্যাশা করে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করো না।  

68. একজন মহান ব্যক্তিকে চেনা যায় ছোট ব্যক্তির সাথে তার ব্যবহার দেখে।  

69. মানুষ যতই শিক্ষিত আর আধুনিক হচ্ছে ততই বিবেকহীন আর নির্লজ্জ হয়ে যাচ্ছে। 

70. তুমি অপরের যত ক্ষতি চাইবে, তার চেয়ে বেশি তুমি নিজেই ক্ষতির সম্মুখীন হইবে।  

Sunday, July 15, 2018

IBA admission test Question-আইবিএ বিবিএ ভর্তি প্রস্তুতি: জেনে নাও খুঁটিনাটি

IBA admission test Question -আইবিএ বিবিএ ভর্তি প্রস্তুতি: জেনে নাও খুঁটিনাটি

এইচএসসি বা সমপর্যায়ের পরীক্ষা সমাপ্তির পর তোমাদের অনেকেরই স্বপ্ন থাকে ব্যবসায় প্রশাসন বিষয়ে পড়াশোনা করার। এই বিষয়ে স্নাতকশ্রেণির পড়াশোনা হচ্ছে বিবিএ, যার পূর্ণাঙ্গ অর্থ ‘ব্যাচেলর অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ-র বিবিএ ডিগ্রি বাংলাদেশের সবচেয়ে সম্মানজনক ডিগ্রিগুলোর মধ্যে একটি। এই স্বপ্নপূরণের পথে কীভাবে প্রস্তুতি নেবে, কী কী করণীয় সে ব্যাপারে তোমাদের মনে যত প্রশ্ন রয়েছে, এই লেখাটির মাধ্যমে তার সবগুলোর উত্তর পেয়ে যাবে।

আইবিএ-তে ভর্তি পরীক্ষা কারা দিতে পারে?

তুমি যেকোন গ্রুপ থেকেই পড়াশোনা করো না কেন, (সায়েন্স/আর্টস/কমার্স) এইচএসসি (মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে আলিম) পাশ করার পরে বিবিএতে ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবে। বাংলা মিডিয়াম, ইংলিশ মিডিয়াম, মাদ্রাসা- কোন ভেদাভেদ নেই, সবাই পারবে পরীক্ষা দিতে।

ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পেতে জিপিএ কত লাগবে?

অনেকে মনে করো যে এসএসসি, এইচএসসিতে গোল্ডেন থাকা লাগবে বা ইংরেজিতে এ প্লাস থাকতে হবে। এটি সম্পূর্ণ ভ্রান্ত ধারণা। আইবিএতে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার যোগ্যতা অর্জন করতে তোমার এসএসসি এবং এইচএসসি উভয় মিলিয়ে মোট জিপিএ ৭.৫ থাকলেই যথেষ্ট (চতুর্থ বিষয় সহ)।

IBA admission test Question -আইবিএ বিবিএ ভর্তি প্রস্তুতি: জেনে নাও খুঁটিনাটি

জিপিএর উপর ভিত্তি করে পয়েন্ট ঠিক করা হয়।

এসএসসিতে তোমার জিপিএ ৪.৫ হলে পাবে ৩ পয়েন্ট, আর ৩.৫ জিপিএ হলে পাবে ২ পয়েন্ট।

এইচএসসিতে জিপিএ ৪ হলে পাবে ৩ পয়েন্ট, এবং জিপিএ ৩ হলে ২ পয়েন্ট।

এই পয়েন্টগুলো যোগ করে মোট ৫ পয়েন্ট পেলেই তুমি যোগ্য পরীক্ষা দেওয়ার জন্য।

আইবিএতে কি শুধু ইংলিশ মিডিয়ামের শিক্ষার্থীরাই পড়ে?

এটি একটি প্রচলিত ভুল ধারণা। আগেই বলেছি, এখানে বাংলা-ইংরেজি-মাদ্রাসা কোন মাধ্যমের ভেদাভেদ নেই। তুমি যে মাধ্যমেই পড়াশোনা করো না কেন, যোগ্যতা থাকলে অবশ্যই সুযোগ পাবে আইবিএতে।

একটি মজার তথ্য জেনে অবাক হবে, সাধারনত আইবিএতে ভর্তি পরীক্ষায় প্রতিবছর উত্তীর্ণদের ভেতর ইংলিশ মিডিয়ামের চেয়ে বাংলা মিডিয়ামের শিক্ষার্থীদের সংখ্যাই বেশি থাকে! সুতরাং, তোমার ভয় পাওয়ার কোন কারণ নেই।

ভর্তিযুদ্ধে কত পরীক্ষার্থী অংশ নেয়? উত্তীর্ণ হয় কতজন?

প্রতিবছর গড়ে ছয় থেকে সাত হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেয় আইবিএ ভর্তি পরীক্ষায়। সেখান থেকে লিখিত পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণ হয় ১৮০ জন, তাদেরকে একটি চূড়ান্ত মৌখিক পরীক্ষার মুখোমুখি হতে হয়। মৌখিক পরীক্ষা শেষে চূড়ান্তভাবে বাছাই হয় ভাগ্যবান ১২০ জন শিক্ষার্থী।

এত এত পরীক্ষার্থীদের মাঝে আমি কি পারবো?

প্রথমেই জেনে রেখো, পরীক্ষার্থীর সংখ্যা অনেক হলেও সত্যিকারের প্রতিযোগিতায় আসার যোগ্যতা থাকে খুব কম শিক্ষার্থীরই। যেহেতু আইবিএ-র ভর্তি পরীক্ষা বছরের শেষদিকে হয়, এর আগেই মেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং সহ অন্যান্য পরীক্ষাগুলো সমাপ্ত হয়ে যায়। অনেকেই তাই কৌতূহল বা শখের বশে পরীক্ষা দিতে আসে যথাযথ প্রস্তুতি ছাড়া।

তোমার সত্যিকারের প্রতিযোগিতা হবে মাত্র ১০-১৫% পরীক্ষার্থীর সাথে। সুতরাং এত পরীক্ষার্থী দেখে ঘাবড়ে যাওয়ার কিছু নেই।

ভর্তি পরীক্ষা কখন অনুষ্ঠিত হয়? সার্কুলার কখন ছাড়ে?

সাধারনত অক্টোবরের একদম শুরুতেই ফর্ম ছাড়া হয় ওয়েবসাইটে। রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরুর সাত সপ্তাহের ভেতর ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণত অক্টোবরের একদম শেষে বা নভেম্বরের শুরুতে অনুষ্ঠিত হয় আইবিএ বিবিএ ভর্তি পরীক্ষা (এটি fixed নয়, বছরভেদে আগে পরে হতে পারে)।

এ তো গেল ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য। সব জানার পর যদি লক্ষ্য স্থির করো আইবিএতেই পড়তে চাও, চলো তবে জেনে নেওয়া যাক কীভাবে নেবে পরিপূর্ণ প্রস্তুতি।

আইবিএ বিবিএ ভর্তি পরীক্ষার পাঠ্যসূচি কী?

আইবিএ ভর্তি পরীক্ষার জন্য কোন ধরাবাঁধা পাঠ্যসূচি বা সিলেবাস নেই। যেহেতু কোন নির্দিষ্ট সিলেবাস নেই, সুতরাং শতভাগ প্রস্তুতি নেওয়া কারো পক্ষেই সম্ভব না। এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে, অনুশীলনের বিকল্প কিছু নেই। তুমি যা পড়বে এর ৪০% হয়তো মনে থাকবে না, সেটা নিয়ে চিন্তিত হবার কিছু নেই। এই ৬০% কে পুঁজি করেই বিজয়ের নিশান উড়িয়ে দিতে পারবে তুমি। সুতরাং “কী কী পড়বে” তারচেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ “কী কী বাদ দিয়ে পড়বে”।

আমাকে কি ইংরেজি ও গণিতে অসাধারন দক্ষ হতে হবে?

আমরা অনেকেই আছি, যাদের ইংরেজির ভিত্তি তেমন শক্ত নয় অথবা গণিতে দুর্বল। তাদের জন্য কাজটি কঠিন নিঃসন্দেহে, কিন্তু যতই দুর্বল হওনা কেন, কঠোর পরিশ্রম করলে তুমি অবশ্যই উত্তীর্ণ হবে।

আইবিএ ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নে সাধারণত IQ based (বুদ্ধির পরীক্ষা) প্রশ্ন থাকে, মাধ্যমিক পর্যায়ের অঙ্ক থাকে বেশিরভাগ। ইংরেজিতে বেসিক গ্রামারের খুঁটিনাটি জানা থাকতে হয় ভালভাবে, সাথে ভোক্যাবুলারি রয়েছে। সুতরাং ইংরেজি/গণিত এগুলো নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। অনুশীলনের মাধ্যমে সব আয়ত্তে আনা অবশ্যই সম্ভব।

প্রশ্নের মানবণ্টন

লিখিত পরীক্ষা দুটি পর্যায়ে হয়। নৈর্ব্যক্তিক এবং লিখিত।

নৈর্ব্যক্তিক অংশ

নৈর্ব্যক্তিক (M.C.Q) পরীক্ষার সময় ৯০ মিনিট। এতে তিনটি অংশ থাকে – ইংরেজি (৩০ মার্কস), গণিত (৩০ মার্কস), এনালিটিকাল (বিশ্লেষণী) (১৫ মার্কস)।

তোমাকে ইংরেজি, গণিত, এনালিটিকাল প্রত্যেকটি অংশ আলাদা আলাদাভাবে পাশ করতে হবে।

বেশিরভাগ অংশে ফুল মার্কস পেয়েও কোন একটি অংশেও যদি ফেল করো তাহলে তুমি অনুত্তীর্ণ।

প্রত্যেকটি অংশে Passing Mark (পাশ মার্ক) কতো?

এটি বছরভেদে বা প্রশ্ন কতো কঠিন বা সহজ হয় তার উপর নির্ভর করে পরিবর্তিত হতে পারে। কিন্তু প্রচলিত নিয়ম অনুযায়ী প্রতিটি অংশে Passing Mark 60%।

অর্থাৎ ইংরেজি ও গণিতে তোমাকে কমপক্ষে ১৮ মার্কস এবং এনালিটিকালে কমপক্ষে ৯ মার্কস পেতে হবে।

নেগেটিভ মার্কিং কতো? ক্যালকুলেটর কি আনা যাবে?

প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ করে কাটা যাবে। সুতরাং একদম নিশ্চিত না হয়ে উত্তর করবে না। আইবিএ ভর্তি পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর কখনোই অনুমোদিত নয়।

ইংরেজি অংশ
ইংরেজিতে মূলত ৩টি অংশ থাকে।

Grammar

Reading (comprehension)

Vocabulary

গণিত অংশ
গণিতেও ৩টি অংশ থাকে।

Algebra

Arithmetic

Geometry

(এগুলো সবই মাধ্যমিক পর্যায়ের অঙ্কের Standard অনুযায়ী)।

এনালিটিকাল অংশ
যথারীতি এখানেও ৩টি অংশ।

Puzzle Solving

Critical Reasoning

Data Sufficiency

কীভাবে নেবে প্রস্তুতি?

মনে রাখতে হবে, অনুশীলনের বিকল্প নেই। তোমাকে প্রত্যেকটি টপিক হাজার হাজার বার অনুশীলন করতে হবে,  এতে কোন ঘাটতি রাখা চলবে না। এখন জানাবো প্রস্তুতির জন্য কী কী বই বা অনলাইন সোর্সের প্রয়োজন। সাথে জানাবো কোন বিষয়ের জন্যে কী কী বই পড়া দরকার।

বইয়ের তালিকা
Cliff’s TOEFL

Barron’s SAT

Word Smart (part 1 & 2)

GRE Big Book

GMAT

Math Q Bank (Mentors, Saifur’s)

ইংরেজি:

গ্রামার শেখার জন্য Cliff’s TOEFL শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অসম্ভব মনোযোগ দিয়ে পড়তে হবে। খুঁটিনাটি সব গ্রামাটিক্যাল রুলস খুব ভালভাবে জানতে হবে। এই বইটির প্রত্যেকটা অনুশীলনী বারবার চর্চা করবে।
Barron’s SAT থেকে Sentence Correction & Error Detection এই অংশগুলো খুব ভালভাবে অনুশীলন করবে। SAT এ প্রায় ৩৫০০ শব্দের ভোক্যাবুলারি লিস্ট আছে, সেগুলো সব শিখে ফেলতে পারলে তো কথাই নেই, তা যদি না পারো, SAT এর High Frequency 400 word একদম ঠোঁটস্থ জানতে হবে।
Analogy, Sentence Completion এগুলো GRE Big Book থেকে পড়তে হবে।
এর পাশাপাশি Word Smart বইটি অনেক সাহায্য করবে।
Reading Comprehension, Fill in the blanks এগুলো আইবিএর বিগত বছরের প্রশ্নগুলো বারবার সলভ করো, পাশাপাশি Cliff’s TOEFL & Barron’s SAT থেকেও সলভ করো।
গণিত:
 গণিতের প্রস্তুতির জন্য Mentors’ Math Q Bank এই বইটির কোন বিকল্প নেই। Algebra, Arithmetic, Geometry প্রত্যেকটি অংশ বারবার অনুশীলন করবে। আমি নিজে এই বইয়ের প্রত্যেকটা ম্যাথ কমপক্ষে দশবার সলভ করেছি। এত বেশি অনুশীলন করবে যেন প্রশ্ন দেখেই প্যাটার্ন ধরে ফেলতে পারো, মুখে মুখে সলভ করে ফেলতে পারো।
 এছাড়া বিগত বছরের আইবিএ -র গণিতের প্রশ্নগুলো বারবার সলভ করো।
 GMAT & Barron’s SAT এর গণিতের অংশগুলো অনুশীলন করো বারবার।
 Data Sufficiency এর জন্য GMAT এর data sufficiency চ্যাপ্টারের অঙ্কগুলো চর্চা করো। 

এনালিটিকাল:
এনালিটিকাল অনুশীলনের জন্য GRE Big Book সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বই। এখানে ৩০০+ পাজল আছে, সাধারণত এগুলো থেকেই প্রতিবছর ঘুরেফিরে প্রশ্ন আসে আইবিএতে। সুতরাং এখানের প্রত্যেকটি পাজল একদম ঝালাই করে অনুশীলন করতে হবে।
 Critical Reasoning এর জন্য GRE Big Book & GMAT এ দুটো বই কাজে আসবে তোমার।
অনলাইন সোর্স:
বইয়ের পালা তো গেল, প্রস্তুতির জন্য অনলাইনেও অনেক সাহায্য পাবে তুমি।

 Majortest.com খুব উপকারী একটি ওয়েবসাইট, এখান থেকে প্রতিদিন অবশ্যই ইংরেজি, গণিত, এনালিটিকাল এগুলো চর্চা করবে। এখানে উত্তর ব্যাখ্যাসহ দেওয়া থাকে, তাই বুঝতে সাহায্য করবে অনেক।
নৈর্ব্যক্তিক অংশের আলোচনা শেষ হলো। এবার দেখে নেওয়া যাক লিখিত অংশে কী কী আছে।

লিখিত অংশ (৩০ মিনিট)
তোমাকে খুব চমৎকার ইংরেজি লিখতে জানতে হবে বা সাহিত্য করতে হবে এমন কোন কথা নেই। যেগুলো লক্ষ্য রাখতে হবে-

 হাতের লেখা পরিষ্কার ও গুছানো হতে হবে। 
 কোনরকম বানান ভুল করা যাবে না।
 বাক্যের গঠনে বিন্দুমাত্র গ্রামাটিক্যাল Error যেন না হয়।
 অনর্থক লেখা বড় না করে কম কথায় মূল বক্তব্য সাজিয়ে তুলে ধরতে হবে।
প্রস্তুতি কীভাবে নেবে তা তো জানলে। কিন্তু শুধু প্রস্তুতি নিলেই চলবে না, পরীক্ষার হলে কী কী করণীয় সেটিও জানতে হবে।

পরীক্ষার হলে যা যা অবশ্যই মাথায় রাখবে
সময় ব্যবস্থাপনা করো:

আইবিএ-র প্রশ্ন ক্লাস এইটের শিক্ষার্থীও সলভ করতে পারবে, তুমি সলভ করতে পারছো কিনা তা দিয়ে কিচ্ছু আসে যায় না। কত তাড়াতাড়ি সলভ করতে পারছো সেটি আসল বিষয়। Time Constraint এর ব্যাপারটি মাথায় রাখতে হবে। বাসায় হাজার হাজারবার অনুশীলন করো প্রত্যেকটি ম্যাথ, পাজল যেন পরীক্ষার হলে দেখামাত্র মুখে মুখে সলভ করে ফেলতে পারো।
Time Management এর আরো একটি টিপস – প্রস্তুতি নেয়া বড় কথা নয়, প্রস্তুতিকে ঠিকভাবে কাজে লাগানোই সাফল্য। তোমাকে প্রত্যেকটা Segment-এ আলাদা আলাদাভাবে পাস করতে হবে। কাজেই তুমি যা পারো, শুধু সেটা নিয়েই পড়ে থাকবে না। সময়টাকে ভাগ করে নিবে, পুরো সময়ের দুই-তৃতীয়াংশ সময়ে যা যা পারো, সেগুলো ঝটপট উত্তর করে ফেলবে। বাকি সময় যেটুকু থাকে তখন অন্য প্রশ্নগুলো সলভ করার চেষ্টা করবে।
বাসায় প্রতিদিন বিগত বছরের প্রশ্নগুলোর উপর নিজে নিজে মডেল টেস্ট দিয়ে Time Management অনুশীলন করবে। শেষ একমাস কোন Study break নেই। কঠোর রুটিন মেনে পড়াশোনা করতে হবে।
ভেবেচিন্তে উত্তর দাও:

আগেই বলেছি প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ মার্কস কাটা যাবে। সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার কথা চিন্তাও করবে না। তোমাকে সব পারতে হবে এটা ভাবার প্রশ্নই আসে না।
যেগুলোর উত্তর তুমি একদম নিশ্চিত সেগুলো আগে দাগাও, পাসিং মার্ক অতিক্রম করতে পারলেই নিশ্চিত থাকো তুমি সফল হবে। ৬০% মার্কস পেয়েও বহু পরীক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়, অথচ ৯০% মার্কস পেয়েও নেগেটিভ মার্কিং এর জন্য কোন একটি সেকশনে পাসিং মার্ক পেরোতে না পারায় ফেল আসে অনেকের।
সারপ্রাইজের জন্য প্রস্তুত থাকো । এমন অনেক প্রশ্ন আসতে পারে পরীক্ষায় যেগুলো আসার কথা তুমি কল্পনাও করোনি।
STAY COOL! মাথা ঠাণ্ডা রাখো! ৯০% পরীক্ষার্থী অনুত্তীর্ণ হয় কেবল এই একটি কারণে। প্রশ্ন সলভ করতে সবাই পারে কিন্তু পরীক্ষার হলে মাথা গরম করে ফেললে সব স্বপ্ন ধ্বংস হয়ে যাবে তোমার।
আত্মবিশ্বাসী হও:

BE A WINNER! পরীক্ষার হলে ভয় লাগাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এই টেনশন আর ভয়কে প্রশ্রয় দিলে একদম সর্বনাশ হয়ে যাবে। মনে একটাই বিশ্বাস রাখবে – “WHO AM I? I AM A CHAMPION!”
শুধু আত্মবিশ্বাসের জোরেই দেখবে পরীক্ষা অনেক ভাল হবে।
তোমার বুকে ১০০% বিশ্বাস থাকতে হবে তুমি আইবিএতে চান্স পাওয়ার যোগ্য

লিখিত পরীক্ষার আলোচনা শেষ হলো। তোমরা যারা এই কঠিন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবে তাদের আরেকটি বাধা পেরোতে হবে – মৌখিক পরীক্ষা। এখান থেকে ঝরে যাবে আরো ৬০ জন!  এতদূর পথ পাড়ি দিয়ে এই পরীক্ষায় বাদ পড়ে যাওয়ার কষ্ট সহ্য করার মতো নয়। তাই মৌখিক পরীক্ষা সম্পর্কেও জানতে হবে ভালভাবে।

চূড়ান্ত মৌখিক পরীক্ষা

সুন্দর ফরমাল ড্রেস পরে যাবে ভাইভাতে। ফুলহাতা শার্ট, প্যান্ট, সাথে স্যুট পরতে পারো। জুতো একদম পরিষ্কার যেন হয়। চুল আঁচড়ানো হবে। মেয়েদের জন্যও ভাইভা বোর্ডের ভাবগাম্ভীর্য অনুযায়ী যথাযথ পোষাক বাঞ্ছনীয়। তোমাকে দেখে যেন বিনীত এবং মার্জিত রুচির পরিচয় পাওয়া যায়।

তোমার চলনে বলনে আত্মবিশ্বাসের ছাপ থাকতে হবে। ভাইভা বোর্ডে অনেকভাবে তোমাকে নার্ভাস করার চেষ্টা করা হবে, আত্মবিশ্বাস হারালে চলবে না।
আত্মবিশ্বাস তো থাকতেই হবে, কিন্তু তাই বলে ওভার কনফিডেন্ট হলে চলবে না। বেয়াদবি বা Inappropriate কথা-বার্তা, আচরণ ভুলেও করা যাবে না ভাইভা বোর্ডে।
ভাইভার প্রস্তুতির জন্য আলাদা করে কিছু পড়তে হবে না। সাধারন জ্ঞান, এসএসসি এইচএসসি থেকে কোন পড়া ধরা হয়না সাধারনত ভাইভাতে।
অনেকেই আছে ইংরেজিতে কথা বলায় ফ্লুয়েন্ট না। এটা নিয়ে ঘাবড়ে যাওয়ার কিছু নেই। কমন কিছু প্রশ্ন-

তোমার পরিবারে কে কী করেন, কোথায় পড়াশোনা করেছো, কেন আইবিএতে পড়তে চাও, ক্যারিয়ার হিসেবে কোন পথ বেছে নিবে, তোমার জীবনের স্বপ্ন কী ইত্যাদি প্রশ্নের উত্তর সুন্দর করে গুছিয়ে বলার অনুশীলন করবে। ভাইভা বোর্ডে পারো আর না পারো, ইংরেজি বলে যাবে। ইংরেজির জন্য কাউকে থামিয়ে রাখা যায়না। Accent নিয়ে চিন্তাও করবে না, accent কেউ দেখেনা, ইংরেজি বলতে পারলেই হলো।

ভাইভা বোর্ডে মূলত যাচাই করা হয় তোমার উপস্থিত বুদ্ধি, আচরণে মার্জিত বিনীত মনোভাব, আন্তরিকতা, আত্মবিশ্বাস, স্মার্টভাবে পরিস্থিতি সামলানোর ও মাথা ঠাণ্ডা রাখার ক্ষমতা।

শেষকথা

আইবিএ বিবিএ ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হচ্ছে আত্মবিশ্বাস। আমি যেমন আইবিএ এবং বিইউপি ছাড়া অন্য কোথাও পরীক্ষাই দেইনি। তোমার বুকে ১০০% বিশ্বাস থাকতে হবে তুমি আইবিএতে চান্স পাওয়ার যোগ্য।

প্রস্তুতিতে কোন অবহেলা করা যাবে না। ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতির মাঝে ঈদ, পূজোর ছুটি যাবে, এগুলোর উদযাপনে একটা ঘণ্টাও যেন নষ্ট না হয়। ঘুম, আড্ডাবাজি, ফেসবুকিং, সব বন্ধ এই কয় মাস। ভর্তি পরীক্ষার এই কয়টি দিন তুমি কতটুকু পরিশ্রম করছো তার উপর নির্ভর করবে তোমার বাকি জীবনের পথচলা।

স্বপ্নের আইবিএতে পড়ার লক্ষ্য পূরণ হোক সবার। শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ-ই নয়, তুমি যদি এই লেখা অনুসারে প্রস্তুতি নাও তাহলে বিইউপি, জাহাঙ্গীরনগর, নর্থ সাউথ সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিবিএ পরীক্ষাতেও অনেক ভাল করবে।

WORK HARD, DREAM BIG, REACH FOR THE SKY!

Sunday, June 3, 2018

University admission Test Preparation and BCS Exam Resources


University admission Test Preparation and BCS Exam Resources 


০১.জাতিসংঘের বর্তমান মহাসচিব                                                                

ক. বান কি মুন                                         খ. কফি আনান

গ. আন্তোনিও গুতেরিস                              ঘ. দ্যাগ হামারশোল্ড

০২.আন্তর্জাতিক মানবাধিকার কমিশনের সদর দফতর

ক. নিউ ইয়র্কে                                         খ. প্যারিসে

গ. জেনেভায়                                           ঘ. লন্ডনে

০৩.NATO-এর সর্বশেষ সদস্য দেশ কোনটি?                                                 

ক. মন্টিনিগ্রো                                          খ. পাপুয়া নিউগিনি

গ. আইভরি কোস্ট                                     ঘ. নিরক্ষীয় গিনি
University admission Test Preparation and BCS Exam Resources

 
০৪.বিশ্ব তথ্য অধিকার দিবস কোনিট?                                                             

ক. ২৭ সেপ্টেম্বর                                      খ. ২৮ সেপ্টেম্বর

গ. ২৭ অক্টোবর                                        ঘ. ২৮ অক্টোবর

০৫.সমপ্রতি আনান কমিশন কোন আন্তর্জাতিক সমস্যার ওপর প্রতিবেদন প্রদান করেছে?           

ক. ফিলিস্তিন সমস্যা                                 খ. রোহিঙ্গা সমস্যা

গ. কুর্দি সমস্যা                                        ঘ. সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ

৬.কফি আনান কোন দেশের নাগরিক?                                                            

ক. ঘানা  খ. নাইজেরিয়া   গ. নাইজার           ঘ. কেনিয়া

৭.      বিশ্বব্যাংকের Soft Loan Window কোনটি?                                     

ক. MIGA    খ. IBRD     গ. IDA            ঘ. IFC

৮.আন্তর্জাতিক আদালতের সদর দপ্তর কোথায় অবস্থিত?

ক. জেনেভা                                             খ. টোকিও

গ. ন্যুরেমবার্গ                                           ঘ. হেগ

৯.Which UN organization declared the Sundarbans as the world heritage?

ক. UNICEF                                        খ. UNHCR

গ. UNCTAD                                       ঘ. UNESCO

১০. জাতিসংঘের সর্বশেষ (১৯৩তম) সদস্য রাষ্ট্র কোনটি?                                    

ক. পূর্ব তিমুর                                           খ. দক্ষিণ সুদান

গ. কঙ্গো                                                 ঘ. কাতালোনিয়া

১১.জাতিসংঘের প্রথম মহাসচিব কে?                                                               

ক. কফি আনান                                        খ. ট্রিগভেলি

গ. উ-থান্ট                                              ঘ. বুট্রোস ঘালি

১২.জাতিসংঘ কর্তৃক ঘোষিত Sustainable Development Goals (SDG) কত সালের মধ্যে বাস্তবায়ন করতে হবে?                              
 ক. ২০২০                                              খ. ২০২৫

গ. ২০৩০                                                ঘ. ২০৪০

১৩.সমপ্রতি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ কর্তৃক কোন দুটি পুরস্কারে ভূষিত হন?                

ক. প্ল্যানেট ৫০-৫০ চ্যাম্পিয়ন এবং এজেন্ট অব চেইঞ্জ এওয়ার্ড

খ. প্ল্যানেট ৫০-৫০ চ্যাম্পিয়ন এবং চ্যাম্পিয়ন অব দি অর্থ 

গ. এজেন্ট অব চেইঞ্জ এওয়ার্ড এবং চ্যাম্পিয়ন অব দি আর্থ

ঘ. ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ এবং চ্যাম্পিয়ন অব দি আর্থ

ঙ. এজেন্ট অব চেইঞ্জ এওয়ার্ড এবং ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ

১৪.জাতিসংঘের মহাসচিব হিসেবে কে নিয়োগ পেয়েছেন?                                    

ক. হেলেন ক্লার্ক                                       খ. সুজানা মালকুরা

গ. অ্যান্তোনিও গুতেরেস                             ঘ. ভুক জেরেমিক            


১৫.প্রতি বছর বিশ্ব বিনিয়োগ প্রতিবেদন প্রকাশ করে কোন সংস্থা?                         

ক. UNDP

খ. UNCTAD

গ.World Bank

ঘ. WTO

ঙ. IMF

১৬.কোন সংস্থা বিশ্ব ঐতিহ্য এলাকা ঘোষণা করে?                                           

ক. UNESCO                                      খ. UNEP

গ. WWF   ঘ. UNWTO                         ঙ. ILO

১৭.World Intellectual Property Organisation (WIPO) এর সদর দপ্তর কোথায় অবস্থিত?      

ক. লিসবন

খ. নিউইয়র্ক

গ. হেগ

ঘ. লন্ডন

ঙ. জেনেভা

১৮.স্থায়ী সালিসি আদালত কোথায় অবস্থিত?

ক. জেনেভাখ. লন্ডন                                  খ. হেগ

গ. প্যারিস                                              ঘ. ওয়াশিংটন

১৯.   কোন সংস্থা চ্যাম্পিয়নস অব দ্য আর্থ পুরস্কার দিয়ে থাকে?          

ক. UNESCO                                      খ. UNEP            

গ. FAOঘ. IUCN                                 ঙ. WWF

২০. IPCC-এর পূর্ণরূপ কোনটি?                                                                  

ক. International Panel for Climate Change

 খ. International Place for Climate Change

গ. Intergovernmental Place for Climate Change

ঘ. International Package for Climate Change

২১. জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের প্রথম বাংলাদেশি সভাপতি কে?                      

ক. বি.এ.সিদ্দিকী

খ. খাজা ওয়াসিউদ্দিন

গ. হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী

ঘ. ড. কামাল হোসেন

ঙ. আবু সায়ীদ চৌধুরী

২২.বাংলাদেশ কোন সালে জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ করে?

ক. ১৯৭২                            খ. ১৯৭৩

গ. ১৯৭৪                            ঘ. ১৯৭৫


২৩.সুন্দরবনকে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ হিসেবে ঘোষণা করেছে কোন সংস্থা?

ক. ইউনেস্কো                   খ. ইউনিসেফ     

গ. ইউএনডিপি                ঘ. ডব্লিউএইচও


২৬. Sustainable Development Goals (SDG) জাতিসংঘের সাধারণ সম্মেলনে গৃহীত হয়

ক. ২০১৫ সালে                                       খ. ২০১৬ সালে

গ. ২০১৪ সালে                                        ঘ. ২০১৩ সালে

২৭. ১ জুলাই ২০১২ থেকে বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট                                         

ক. ইয়াংজেন                                           খ. জিম ইয়ংকিম

গ. ফিলিপস মে                                         ঘ. মার্ক জাকারবার্গ

২৮. বর্ণবাদ বিরোধী দিবস কোনটি?                                                                

ক. ১ জানুয়ারি                                         খ. ২১ মার্চ

গ. ২১ মে                                                ঘ. ৮ এপ্রিল

২৯. Who has been elected as the new Secretary General of the United Nations for the next tenure? 

ক. Anibal Silva                       খ. Vitally Antonio

গ. Antonio Gutters                  ঘ. Matthew Rycroft

৩০.How many goals are set for the SDGs?                                    

ক. 8       খ. 10      গ. 15      ঘ. 17

৩১.Where is the Headquarter of UNHCR?                                    

ক. Brussels           খ. Geneva

 গ. Rome               ঘ. Vienna

৩২.Who is going to swear in as 9th UN SecretaryGeneral on 1 January 2017?

ক. Antonio Gutters                           খ. Ban Ki-Moon

গ. Kurt Waldheim                             ঘ. U Thant

৩৩.When is the World Population Day observed?

ক. 31 May                                         খ. 11 July

গ. 4 October                                      ঘ. 10 December       

৩৪. How many countries are the numbers of World Bank?       

ক. 186         খ. 187          গ. 188          ঘ. 189

৩৫. Which of the following bodies work for the welfare of labors?           

ক. CIRDAP                                        খ. ILO

গ. UNDP                                             ঘ. WHO

৩৬.Which organization declared the 21 February as the International Mother Language Day?

ক. UNESCO                                      খ. UNEPA 

গ. UNHCR                                         ঘ. UNICEF

৩৭. In which city is the International Court of Justice situated?

 ক. Geneva                                                                Hague

 গ. London                                                                 ঘ. New York

৩৮. How many goals are set in the Sustainable development Goals?      

ক. 15             খ. 16            গ. 17            ঘ. 18

৩৯. কোন তারিখে বিশ্ব পরিবেশ দিবস হিসেবে পালন করা হয়?

ক. ৫ জুন       খ. ৬ জুন      গ. ১৯ জুলাই       ঘ. ৮ মার্চ

৪০.জাতিসংঘের নবনির্বাচিত মহাসচিব কোন দেশের নাগরিক?                              

ক. জার্মানি     খ. ইংল্যান্ড        গ. পর্তুগাল       ঘ. মেক্সিকো

৪১.বাংলাদেশ জাতিসংঘের কততম সদস্য?                                                         

ক. ১৩৬তম       খ. ১৩৭তম     গ. ১৩৮তম       ঘ. ১৩৯তম

৪২.জাতিসংঘের স্থায়ী পর্যবেক্ষক দেশ কোনটি?                                                 

ক. প্যালেস্টাইন                          খ. মোনাকো

গ. পূর্ব তিমুর                               ঘ. ম্যাকাও

৪৩.জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে সভাপতি মেয়াদকাল কত?

ক. ১ মাস                                   খ. ১ বছর    

গ. ২ মাস                                    ঘ. ২ বছর

৪৪. ভেটো শব্দের অর্থ                                                   

ক. আমি এটা জানি না

খ. আমি এটা মানি না

গ. আমি কোন মতামত দিব না                    

ঘ. আমি সমর্থন করি

৪৫. আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস কবে?                                                                 

ক. ২১ সেপ্টেম্বর                                      খ. ২৫ সেপ্টেম্বর

গ. ২২ সেপ্টেম্বর                                       ঘ. ৮ সেপ্টেম্বর

৪৬. জাতিসংঘের কোন শাখা জনসংখ্যা নিয়ে কাজ করে?                                     

ক. FAO                            খ. UNESCO

গ. UNHCR                       ঘ. UNFPA

৪৭. আন্তর্জাতিক শিশু অধিকার সনদ গৃহীত হয় কোন সালে?                                 

ক. ১৯৮৯            খ. ১৯৯০      গ. ২০০০      ঘ. ২০০১

[Note: শিশু সনদ গৃহীত ২০ নভেম্বর ১৯৮৯ এবং কার্যকর হয় ১৯৯০।]

৪৮. আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস উদযাপিত হয়                                                    

ক. ৩ জুন                                               খ. ১১ জুলাই

গ. ২১ সেপ্টেম্বর                                       ঘ. ১৬ ডিসেম্বর

৪৯. বিশ্ব শিক্ষক দিবস কোনটি?                                                                     

ক. ১০ আগস্ট                                          খ. ৫ অক্টোবর

গ. ১৫ অক্টোবর                                        ঘ. ১ নভেম্বর

৫০. জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য নয় কোন দেশ?

ক. জার্মানি     খ. ফ্রান্স     গ. যুক্তরাজ্য     ঘ. রাশিয়া


উত্তর: ০১.গ. ০২.গ. ০৩.ক. ০৪.খ. ০৫.খ. ০৬.ক. ০৭.গ.  ৮.ঘ. ৯.ঘ. ১০.খ. ১১.খ. ১২.গ. ১৩ক. ১৪.গ. ১৫খ. ১৬.ক.  ১৭.ঙ. ১৮. খ. ১৯. খ. ২০গ. ২১. গ. ২২. গ. ২৩.ক.

উত্তর: ২৬ ক, ২৭. খ. ২৮,খ ২৯. গ. ৩০.ঘ. ৩১.খ ৩২.ক ৩৩ খ, ৩৪.ঘ. ৩৫খ. ৩৬ ক.৩৭ খ ৩৮ গ ৩৯ খ ৪০.গ ৪১ ক. ৪২.ক ৪৩.ক ৪৪. খ. ৪৫ ক. ৪৬ গ ৪৭,ক ৪৮ গ ৪৯.খ. ৫০.  ক.